৩০০ কোটি টাকা ঋণ দেবে সিএসএমই উদ্যোক্তাদের এসএমই ফাউন্ডেশন

বর্তমান খবর :
করোনাভাইরাস মহামারির ক্ষতি পোষাতে এবং পল্লী এলাকার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে সরকারের দ্বিতীয় দফার প্রণোদনার আওতায় মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএসএমই) উদ্যোক্তাদেও ৪ শতাংশ সুদহারে ৩০০ কোটি টাকা ঋণ দেবে এসএমই ফাউন্ডেশন। এর মধ্যে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে ১০০ কোটি টাকা এবং আগামী অর্থবছরে ২০০ কোটি টাকা বিতরণ করা হবে।

১১টি ব্যাংক ও নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এই ঋণ বিতরণ করা হবে। ইতোমধ্যে এসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সই হয়েছে। এই ১১ প্রতিষ্ঠান হলো- ব্র্যাংক ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, সাউথইস্ট ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, আইডিএলসি ফাইন্যান্স এবং লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স।

এসব প্রতিষ্ঠান সারাদেশে চিহ্নিত বিভিন্ন ক্লাস্টারের উদ্যোক্তা এবং এসএমই ফাউন্ডেশন, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সংগঠন ও অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে সুপারিশকৃত এসএমই উপখাত, ব্যবসায়ী সংগঠনের তালিকাভুক্ত উদ্যোক্তা ও সিএমএসএমই খাতের জন্য সরকার ঘোষিত প্রথম দফার প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় ঋণ না পাওয়া পল্লী ও প্রান্তিক পর্যায়ের উদ্যোক্তাগণকে ঋণ প্রদান করবে। মোট ঋণের ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ পাবে নারী-উদ্যোক্তারা।

এদিকে চুক্তিবদ্ধ হওয়া ১১ প্রতিষ্ঠান ছাড়াও প্রত্যন্ত অঞ্চলের উদ্যোক্তাদের ঋণের আওতায় আনতে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকসহ আরো কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি সইয়ের প্রক্রিয়াও শুরু করেছে এসএমই ফাউন্ডেশন।

এসএমই ফাউন্ডেশন গত মাসে ঋণ কর্মসূচি বিতরণ বিষয়ক নীতিমালা ও নির্দেশিকা অনুমোদন করে। নীতিমালা অনুযায়ী করোনা মহামারির কারণে গ্রামীণ ও প্রান্তিক পর্যায়ের ক্ষতিগ্রস্ত সিএসএমই উদ্যোক্তাদের মধ্যে যারা সরকারের প্রথম দফার প্রণোদনার আওতায় ঋণপ্রাপ্ত হননি কিংবা অগ্রাধিকারভূক্ত এসএমই উপখাত এবং ক্লাস্টারের উদ্যোক্তা,নারী-উদ্যোক্তা,নতুন উদ্যোক্তা অর্থাৎ যারা এখনো ব্যাংক ঋণ পাননি বা পশ্চাদপদ ও উপজাতীয় অঞ্চল, শারীরিকভাবে অক্ষম এবং তৃতীয় লিঙ্গের উদ্যোক্তাগণ ঋণ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে প্রাধিকার পাাবে।

আরও পড়ুন
Loading...