২য় স্ত্রী, শ্বাশুড়-শ্বাশুড়ী ও শালা-শালী কতৃক প্রকাশ্যে প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা

বর্তমান খবর,কক্সবাজার প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের ঈদগাঁও থানার মাইজ পাড়ায় এলাকায় ২য় স্ত্রী, শ্বাশুড়-শ্বাশুড়ী ও শালা-শালী কতৃক প্রকাশ্যে প্রবাসীকে নিষ্ঠুরভাবে পিটানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পরদিন আহত প্রবাসী মনজুর আলম কে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু বরণ করেছেন।

শুক্রবার (২১ মে) সকালে প্রবাসী মনজুর আলম কে তার ২য় স্ত্রী, শ্বাশুড়-শ্বাশুড়ী ও শালা-শালী কতৃক প্রকাশ্যে নির্মমভাবে পিটানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর নিন্দার ঝড় উঠার পাশাপাশি তোলপাড় সৃষ্টি গয়। ঈদগাঁও থানার পুলিশ ঘটনায় জড়িত থাকা তারই ২য় স্ত্রী রুনা আক্তার সহ ৮ জনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে।

ইতিমধ্যে শনিবার (২২ মে) আহত প্রবাসী মনজুর আলম কে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে বেলা সাড়ে ১২ টায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পথে। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নিহত প্রবাসী মনজুর আলম দীর্ঘদিন সৌদি আরবে প্রবাসে কাটিয়েছেন। সৌদী আরব প্রবাস জীবনে যা আয় করেছেন তা বাংলাদেশে অবস্থানরত তার ২য় স্ত্রী রুনা আক্তারের নামে পাঠাতেন। তার ঐ ২য় স্ত্রী নিজের নামে উত্তর মাইজপাড়া গ্রামে কিনেছেন জমি। আর সে জমিতে বানিয়েছেন বহুতল ভবনও।

সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতির কারণে ছুটিতে আসার পর আর বিদেশ যাওয়া হয়নি প্রবাসী মনজুর আলমের। এরই মধ্যে স্বামী স্ত্রীর মাঝে পারিবারিক কলহ দেখা দেয়। স্বামীর সাথে দূরত্ব বাড়াতে থাকেন স্ত্রী রুনা আক্তারের।

এক পর্যায়ে শুক্রবার (২১ মে) সকালে স্ত্রী রুনা আক্তার, তার বাবা-মা, ভাই-বোনসহ সবাই মিলে দিন দুপুরে প্রকাশ্যে হত্যার উদ্দেশ্যে মনজুর আলমকে নির্মমভাবে পিটানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে বিষয়টি জেলা পুলিশের নজরে আসে।

আরও পড়ুন
Loading...