‘সুন্দরের টানে মঙ্গল শত্রু’ অর্ধশত বছরের গল্পের বই প্রকাশ বই কিনুন, সাংবাদিক কপিলের চিকিৎসায় এগিয়ে আসুন

বর্তমান খবর,চিতলমারী প্রতিনিধি :
‘সুন্দরের টানে মঙ্গল শত্রু’ নামে সুন্দবনাঞ্চলের গল্পের বই প্রকাশ হয়েছে। বইয়ের এই প্রথম খন্ডের গল্পে ১৯৭১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত সুন্দরবনাঞ্চলের নানা ঘটনা চিত্র উঠে এসেছে।

চিতলমারী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সদস্য কপিল ঘোষ বইটি লিখেছেন। ঢাকার শ্রাবণ প্রকাশনী বইটি প্রকাশ করেছে। বুধবার (০৯ জুন) বইয়ের কপি বাগেরহাট পৌঁছালে সাংবাদিকবৃন্দসহ পাঠকেরা লেখককে অভিনন্দন জানান।

শ্রাবণ প্রকাশনীর প্রকাশক রবীন আহসান জানান, সুন্দরবনাঞ্চলের মানুষের বিশ্বাস, রীতি, প্রথা গল্পাকারে ছবিসহ লেখক তুলে ধরেছেন। এটা বাংলাদেশের ব্যতিক্রম নতুন ধারার গল্পের বই। গত একুশের বই মেলায় বইটি প্রকাশের ইচ্ছে ছিল। কিন্তু করোনার প্রতিকুল পরিস্থিতির কারণে দেরীতে প্রকাশ হল।

বইয়ের ভূমিকা লিখেছেন খুলনার বিশিষ্ট সাংবাদিক গৌরাঙ্গ নন্দী। তিনি উল্লেখ করেন, কপিল ঘোষ একজন সংবাদকর্মী ও উন্নয়নকর্মী হিসেবে মানুষের অতি কাছে গিয়েছেন। মানুষের বিশ্বাস, ছোঁয়াছুঁয়ির সংস্কার; দুঃখ-কষ্ট- যন্ত্রণা অনুভব করেছেন। সেই অনুভূত বোধ একের পর এক শব্দ দিয়ে মালা গেঁথে পাঠকের সামনে তুলে ধরেছেন।

সাংবাদিক ও উন্নয়নকর্মী শাহাদত হোসেন বাচ্চু বই সম্পর্কে লিখেছেন, ‘অসাম্প্রদায়িক আদর্শ এবং সমন্বয়বাদী চিন্তাধারায় বহুকাল ধরে বনসংলগ্ন মানুষের দিনযাপন। মনে হতে পারে যে, এরা এখনও ‘‘সুসভ্য’’ হয়ে ওঠেনি। অন্তজ শ্রেণির মানুষ। এই মানুষের গল্পই কপিল বলেছেন অবলীলায়। এই বইয়ে লৌকিক ধর্মের মানুষেরা জানে, সবার উপরে মানুষ সত্য।’

লেখক কপিল ঘোষ এই বই সম্পর্কে বলেন, গল্পগুলো সময়ের ঘটনাবলী। যা দেখেছি, জেনেছি তাই তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। বইয়ে নয়টি গল্প রয়েছে, ১. গুরু-শিষ্যে সুন্দরবন, ২. দুখের মা বনবিবি, ৩. পেড়ো, ৪.বায়োস্কওয়ালা হাতেস আলী ও একাত্তরে সুন্দরবনের পন্ডিত, ৫.‘পাগল’ বনে গেলাম, ৬. কবিগানের পান্ডুলিপিগুলো বুকে জড়িয়ে কাঁদতেন তিনি, ৭. সুন্দরবনে বিস্ময়, ৮. গোয়ালঘর, ৯. সন্ধ্যা সেতাঁরা। পাঠকের ভাল লাগলে লেখা স্বার্থক হবে।

১৯২ পৃষ্ঠার বইটির দাম ৩৫০ টাকা; এখন ২৫% কমিশনে বিক্রি ২৬২ টাকায়। বাসায় বসে পেতে ডেলিভারী চার্জ-৫০ টাকা। যোগাযোগ নম্বর ০১৭১২-৭৪৯১৫৪।

সাংবাদিক কপিলের পরিবারের লোকজন জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থতায় ভূগছেন। তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। এই বই বিক্রির টাকা তার চিকৎসায় ব্যয় করা হবে। তাই আপনারা বই কিনুন, সাংবাদিক কপিলের চিকিৎসায় এগিয়ে আসুন।

আরও পড়ুন
Loading...