শিক্ষকের হাতে ৮ম শ্রেণীর ছাত্র জখম

বর্তমান খবর,ঝিনাইদহ,প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নৃসিংহপুর গ্রামে বাড়ি বিষয়খালী এস এম স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক মিজানুর রহমান একই স্কুলের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র জিসান (১৪) কে মারাত্মক ভাবে মেরে আহত করে। ঘটনাটি ঘটে গত ২৪/০৫/২০২১ তারিখ বিকাল ৫ ঘটিকার সময়।

এ বিষয়ে জিসানের পিতা মিলন জানান,শিক্ষক মিজানের বাড়ির পাশে আমার ছেলে জিসান বসে ছিল। সে সময় শিক্ষক মিজানুর রহমান পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আমার ছেলেকে দেখে বলে পাগলা কি করছিস। তখন জিসান বলে আমি মোবাইলে গেম খেলছি। পরে শিক্ষক মাঠ থেকে ঘুরে আসলে জিসান বলে ও পাগলা দাদা কাঠাল পারতে গেছিলে। জিসান শিক্ষকের সম্পর্কে দাদা হয়।

তারপর শিক্ষক হাতের কাছে থাকা ইট দিয়ে জিসানের মাথায় আঘাত করে। পরে জিসান মাটিতে পড়ে গেলে কচার লাঠিতে দিয়ে বেধড়ক পিটাতে থাকেন। স্থানীয়রা এগিয়ে এসে জিসানকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। আমার ছেলেকে জমি জমা সংক্রান্ত বিষয়ে মেরে ফেলার জন্য এমনটি করেছে। আমি এর বিচার চাই।

এ বিষয়ে শিক্ষক মিজানুর রহমান এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোন কেটে দেন এবং একাধিকবার ফোন দিলেও ফোন রিসিভ করে নি।
এ বিষয়ে মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ খুরশীদ আলম এর সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার এস আই শফিকুল ইসলাম বলেন ঘটনাটি আমি তদন্ত করেছি। বিষয়টি সত্য। এ বিষয়ে থানায় এজাহার হয়েছে এখন মামলা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...