শমসেরনগরে কৃষকের ধান কেটে দিল যুবলীগ

বর্তমান খবর,কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি:
কমলগঞ্জের শমসেরনগরের সতিঝিরগ্রামের ৩ কৃষকের দেড় একর জমির ধান কেটে দিয়েছে কমলগঞ্জ উপজেলার যুবলীগ।
বুধবার বেলা ১১টায় সতিঝিরগ্রামের কৃষক ক্বারী ফজলুল হক,আব্দুর রশীদ ও অপু মিয়ার দেড় একর জমির ধান কেটে গাড়ি দিয়ে ধানগুলো কৃষকের বাড়িতে পৌছে দেওয়া হয়।

কমলগঞ্জ উপজেলার যুবলীগের আহবায়ক পৌর মেয়র মো. জুয়েল আহমেদ জানান, লকডাউনের তৃতীয় মেয়াদে শ্রমিক ও অর্থ সংকটের কারণে দেড় একর জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না সতিঝিরগ্রামের কৃষক ক্বারী ফজলুল হক, আব্দুর রশীদ ও অপু মিয়া। ক্ষেতেই ধান নষ্ট হওয়ার উপক্রম হচ্ছিল।

খবর পেয়ে বুধবার বেলা ১১টার দিকে যুবলীগের নেতাকর্মীরা আমার নেতৃত্বে সেখানে যান। দলের প্রায় প্রায় ৪০-৪৫ জন নেতাকর্মী ওই তিন কৃষকের দেড় একর জমির ধান কেটে দেন। ধান কাটা কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ রেজাউল রহমান সুমন। পরে তারা কৃষকের ক্ষেতের ধান কেটে মাথায় করে গাড়িতে তুলে কৃষকের বাড়িতে পৌঁছে দেন।

যুবলীগ নেতাকর্মীরা পাকা ধান কেটে দেয়ায় কৃষক ক্বারী ফজলুল হকসহ তিন কৃষক অনেকটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তারা বলেন, লকডাউনের মধ্যে ধান কাটার উপযুক্ত হলেও লকডাউনে শ্রমিক সংকটে ক্ষতির শঙ্কায় ছিলাম। আমার এ অসহায়ত্বের কথা শুনে যুবলীগ নেতা পৌর মেয়র জুয়েল ভাই দলের নেতাকর্মী সাথে নিয়ে ক্ষেতের ধান কেটে দেন।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক পৌর মেয়র জুয়েল আহমেদ বলেন, করোনাকালীন এই দূর্যোগকালীন সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর যে নির্দেশনা দিয়েছেন তার বাস্তবায়ন ঘটাতেই কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্দেশে আজ কৃষক ক্বারী ফজলুল হক, আব্দুর রশীদ ও অপু মিয়ার ধানী জমির ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেই।

কৃষকের ধান কেটে দেওয়ার যুবলীগের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। করোনার দূর্যোগকালীন সময় কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার বাস্তবায়ন ঘটাতে কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্দেশে গত ২৩ এপ্রিল আনুষ্ঠানিক ভাবে কৃষকের ধান কাটা কার্যক্রম শুরু করে কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ। যার ধারাবাহিকতায় বুধবার দ্বিতীয় বারের মতো কৃষকদের ধান কেটে দিল কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ।

আরও পড়ুন
Loading...