লাউয়াছড়া বনে আগুনে প্রায় দুই একর বন ভস্মীভূত

বর্তমান খবর,শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ
মৌলভীবাজারের জেলার শ্রীমঙ্গল- কমলগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তী স্থান লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে আগুন লেগে ৩ টিলার প্রায় দুই একর প্রাকৃতিক বনের গাছপালা পুড়ে গেছে। আজ ২৪ শে এপ্রিল)(শনিবার) দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২ টার সময় জেলার শ্রীমঙ্গল -কমলগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তী স্থান লাউয়াছড়ার স্টুডেন্ট ডরমেটরি এর বিপরীত এলাকায় এ আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান, শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে উদ্যানের হীড বাংলাদেশের পাশে স্টুডেন্ট ডরমেটরি এর বিপরীত এলাকার একটি টিলায় বনের ভেতর থেকে ধোঁয়া ওঠার খবর স্থানীয়দের কাছ থেকে পান।তারা। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখে আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন।

কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট প্রায় তিন ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে বলে তিনি জানান। বাতাসের কারণে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে যায়। আশপাশেও পানির তেমন ব্যবস্থা না থাকায় ফায়ার সার্ভিসের লোকদের কিছুটা বিলম্ব হয়। প্রায় দুই একর জায়গা ফায়ার জুড়ে আগুন নেভানো হয়।যার ফলে বাইরের বাঁশ-বেত আগুনের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।

কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ নূরুল ইসলাম বলেন, যেখানে আগুন লেগেছে সেখানে কোনো পানির ব্যবস্থা নেই। সেখানে গাড়ি প্রবেশেরও সুযোগ নেই। তাদের ১০ জন কর্মী তিনটি ভাগ হয়ে আগুন নেভনোর কাজ করেন। কম সময়ে জঙ্গল পরিষ্কার করতে বনে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হতে পারে- এমন আশঙ্কার কথা বললেও তিনি তদন্ত হলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে বলে সাংবাদিকদের জানান।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জ অফিসার সহিদুল ইসলাম বলেন, আগামী বর্ষা মৌসুমে ওই স্থানে ফলজ ও বনজ গাছ লাগানোর জন্য জমি তৈরির কাজে হাজিরা ভিত্তিক চা শ্রমিক কাজে নিয়োজিত করা হয়েছিল। তাদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছিল কোনো ধরনের আগুন না জ্বালানোর জন্য। বনে আগুন দিয়ে কাজ করার কোনো নিয়ম নেই। আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির হিসাব তদন্ত করে বের করা হবে বলে জানান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বন বিভাগের কয়েকজন শ্রমিক পাহাড়ের জঙ্গল পরিষ্কারের কাজ করছিলেন। এতে তিনটি পৃথক টিলায় আগুন লেগে ক্রমেই তা ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় সেখানে বিদ্যুতের একটি খুঁটিতে আগুন ধরে গেলে মানুষের মাঝে আতঙ্ক দেখা দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন। এর পূর্বেও গত ১৮ এপ্রিল এবং গত বছরের ১৭ মার্চ একই স্থানে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

বাংলাদেশের বিখ্যাত বনগুলোর মধ্যে অন্যতম লাউয়াছড়ায় হঠাৎ আগুনে বনের ছোট-বড় গুল্ম ও গাছ গাছড়া পোড়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য, আরপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আমিরুজ্জামান।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেছেন, বন বিভাগের খামখেয়ালির জন্য এখানে বারবার আগুনের ঘটনা ঘটছে। এর ফলে শত শত একর বনভূমি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। কিন্তু বন বিভাগের পক্ষে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়ায় বারবার আগুনের ঘটনা ঘটছে।

আরও পড়ুন
Loading...