যমজ শিশুকে বাঁচানো গেল না

বর্তমান খবর,কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি :
বাঁচানো গেল না পেট জোড়া লাগানো যমজ শিশুকে। বুধবার রাত ৯টার টার দিকে ঢাকায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। গত ৫ মে মৌলভীবাজার শহরের জান্নাত প্রাইভেট মেডিকেল হাসপাতালে জুয়েল-তাহমিনা দম্পত্তির ঘরে জন্ম নেয় জোড়া লাগানো জমজ দুই কন্যা শিশু। তাদের বাড়ি কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের শিংরাউলী গ্রামে।

জমজ দুই কন্যা শিশুর জন্মের পর চিকিৎসকরা জানান, তাদের দুজনের হার্ট একটি। অপারেশন করলে তাদের বাঁচানো সম্ভব। চিকিৎসা ব্যয় বহুল হওয়ায় শিশুর পরিবার তাদের জোড়া লাগানো কন্যা সন্তান দুটির চিকিৎসার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী সহ সবার সহযোগিতা চান। তাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার সহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি মহল তাদের পাশে দাঁড়ায়। পরে মৌলভীবাজারের জান্নাত প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে যমজ শিশু দুটিকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

যমজ শিশুর বাবা জুয়েল আহমেদ জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে একজন বড় ডাক্তার এসে তার সন্তানদের দেখার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই বুধবার রাতে তারা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

স্থানীয় শমশেরনগর ইউপি চেয়ারম্যান জুয়েল আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, জমজ দুই কন্যা শিশুকে বাঁচানোর জন্য সরকারি-বেসরকারি ও বিভিন্ন মহলের সহযোগিতায় সর্বত্র চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তাদের আর বাঁচানো গেলো না। আমরা ব্যক্তিগতভাবে একটা ফান্ড তৈরী করেছিলাম শিশু দুটির পরিবারকে সাহায্য করার জন্য। কিন্তু তা আর হলো না। ইতিমধ্যে ফান্ডে যে টাকা জমা হয়েছে তা শিশুর পরিবারের কাছে তুলে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন
Loading...