মধুপুরে কলার বাগান কেটে জমি দখলের পায়তারা

বর্তমান খবর,টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ
টাঙ্গাইলের মধুপুরের কুড়াগাছা ইউনিয়নের ধরাটি টান পাহাড় এলাকায় কলার বাগান কেটে জমি বেদখল দেওয়ার পায়তারা করছে বলে জানা যায়।

উপজেলার পার্শবর্তী এলাকা বারইপাড়া গ্রামের মৃত জুলহাস উদ্দিনের ছেলে মনিরুজ্জামান মামুন জানান, মধুপুর উপজেলাধীন পীরগাছা মৌজায় পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে আমরা প্রায় ৫০ বছর যাবৎ ৬০ শতাংশ জমি চাষাবাদ করে ভোগদখল করে আসছি। বর্তমানে আমি ৬০ শতাংশ জমিতে কলার চাড়া রোপন করে পরিচর্যা করে আসছি। এমতাবস্তায় আমাদের পাশের জমির মালিক ধরাটি এলাকার মৃত রোস্তম আলীর ছেলে আঃ বাছেদ এবং তার লোকজন আমার জমিতে লাগানো প্রায় শতাধিক কলার চাড়া গাছ কেটে জমি বেদখলের পায়তারা করছে।

মঙ্গলবার ২৯ জুন সকাল বেলা তারা আমার লাগানো কলা বাগানের প্রায় শতাধিক কলাগাছ কেটে ফেলছে সংবাদ পেয়ে আমি আমার লাগানো কলা বাগানে গেলে আঃ বাছেদ সহ তার পরিবারের লোকজন আমাকে মারপিট করতে আসলে আমি ঘটনাস্থল থেকে জীবনের ভয়ে চলে আসি। এ ঘটনাটি এলাকার মাতাব্বরগনকে জানাই এবং এলাকার চেয়ারম্যান ফজলুল হককে জানাই।

তাদের ভয়ে আমি বর্তমানে আমার জমিতে যেতে সাহস পাচ্ছিনা। এমনকি তারা বিভিন্ন ধরনের হুমকী দিচ্ছে। এলাকায় তারা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ কি্ছু বলতে সাহস পাচ্ছেনা বলেও জানান মামুন। এ ঘটনার এলাকায় কোন বিচার না পেয়ে এ ব্যাপারে মধুপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান।

সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা বললে তারা জানান ৫০/৬০ বছর যাবৎ মামুনের বাপ দাদারা ওই জমি ভোগ দখল করে আসছে। বর্তমানে ওই জমিতে মামুন কলার বাগান করে পরিচর্যা করছে। বাছেদ এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় কেও তার বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহস পাচ্ছেনা বলেও এলাকার লোকজন জানান।

এলাকার লোকজন এ ব্যাপারে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন যাতে মামুন সুবিচার পায়।

আরও পড়ুন
Loading...