ভারত ফেরত ১৪৩ যাত্রীর কোয়ারেন্টাইন ঝিনাইদহে

বর্তমান খবর,কালীগঞ্জ(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি :
ঝিনাইদহে ভারত ফেরতদের জন্য কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬মে) পর্যন্ত ১৪৩ বাংলাদেশীকে এসব জায়গায় বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এছাড়া যশোর সাতক্ষীরা, খুলনা ও নড়াইলে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনা জানাজানির পর থেকে শহরের সাধারন মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ঝিনাইদহ ডিআইও-১ মোঃ আতিকুর রহমান জানান, শনিবার ১ মে দুপুর থেকে যশোরে স্থান সংকুলান না হওয়ায় পুলিশি পাহারায় তাদের বেনাপোল থেকে ঝিনাইদহে আনা হয়। এখানে যাদের রাখা হয়েছে তাদের বাড়ি চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, খুলনা, ফরিদপুর,রংপুর,বগুড়া ও রাজশাহী জেলায়। ঝিনাইদহ শহরের পিটিআই হোস্টেল এবং এইড ফাউন্ডেশনের রেস্ট হাউজে পৃথক দু’টি কোয়ারেন্টাইন খোলা হয়েছে।

ভারত ফেরত এইড ফাউন্ডেশনে কোয়ারেন্টাইনে থাকা কয়েকজন যাত্রী বলেন, আমাদের বারবার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ভারত থেকে দুইবার আবার দেশে ফিরে বেনাপোলে একবার পরীক্ষা করা হয়। তবুও কেন আমাদের এখানে ১৪ দিন থাকতে হবে?

জেলা প্রশাসক মো.মজিবর রহমান বলেন,করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট রোধে দুই সপ্তাহের জন্য ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার। এতে ভারতে আটকা পড়ে বাংলাদেশি কিছু যাত্রী। তারা বিশেষ অনুমতি নিয়ে দেশে ফিরছেন। ভারত ফেরত এসব যাত্রীকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ঝিনাইদহে ১৪৩ যাত্রী এসেছে । তাদেরকে ঝিনাইদহ পিটিআই এর হোস্টেল এবং এইড ফাউন্ডেশনের রেস্ট হাউজে রাখা হয়েছে।

যারা পিটিআই হোস্টেলে আছেন তাদের থাকা-খাওয়ার খরচ সরকার বহন করছে। আর যারা এইড ফাউন্ডেশনের রেস্ট হাউজে থাকছেন তাদের খরচ নিজেদের বহন করতে হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, তাদের চিকিৎসার জন্য বিশেষ মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। চিকিৎসকরা নিয়মিত তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। তাদেরকে পুলিশী নিরাপত্তায় রাখা হয়েছে যাতে কোনো সমস্যা না হয়।

আরও পড়ুন
Loading...