Ultimate magazine theme for WordPress.

বেনাপোলে মাদক নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের…

কমলগঞ্জে স্বামীকে অচেতন করে স্ত্রীর পরকিয়ায়…

প্রবীণ আওয়ামী নেতাদের উপহার দিয়ে সাক্ষাৎ করেন-আব্দুল মজিদ মোল্লা

0 ১২৯

বর্তমান খবর,জয়পুরহাট,প্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় সংসদের হুইপ ও আক্কেলপুর,কালাই,ক্ষেতলাল নিয়ে গঠিত জয়পুরহাট-২ আসনের সাংসদ হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন-এমপি’র পরামর্শে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বসবাসরত বয়সে কারণে রাজনীতি থেকে দূরে থাকা প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়ি বাড়ি বিভিন্ন উপহার নিয়ে উপস্থিত হয়ে তাদের শারীরিক অবস্থাসহ সকল বিষয়ে খোঁজখবর নিতে দলীয় ত্যাগী নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে উপজেলার প্রবীণ আওয়ামী নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ করেন ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি ও আসন্ন ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল মজিদ মোল্লা।

বৃহস্পতিবার (১৭ এ জুন) সকাল ১০ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে মোটরসাইকেল বহর নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি আব্দুল মজিদ মোল্লা’র নেতৃত্বে বিকেল সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বসবাসরত দলের দূরসময়ের রাজপথ কাঁপানো প্রতিবাদী ত্যাগী,দল প্রেমী পরিশ্রমী মোট ১০ জন বয়স্ক প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সাক্ষাৎ করে উপহার সামগ্রী মিষ্টির প্যাকেট,নামাজ পড়ার জন্য জায়নামাজ,তসবি,লুঙ্গি, টুপি,গেঞ্জি ও একটি করে ছাতা তাদের হাতে উপহার হিসেবে তুলে দেন আব্দুল মজিদ মোল্লাসহ উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা। সাক্ষাৎ কালে প্রবীণ নেতাদের শারীরিক, পারিবারিকসহ সকল সমস্যার বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে সেইসব প্রবীণ নেতাদের নিকট দোয়াও চান তাঁরা।

এবিষয়ে ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি ও মেয়র পদপ্রার্থী আব্দুল মজিদ মোল্লা জানান,দলকে আরও সুসংগঠিত করতে এ উদ্যোগটির বিষয়ে আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ৪ র্থ বারের সফল সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় সংসদের হুইপ আমাদের এমপি হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন-এমপিকে জানালে তিনি এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রবীণ নেতাদের সাথে সাক্ষাৎর করার বিষয়েও পরামর্শ দিলে বর্তমানে রাজনীতিতে বিনা স্বার্থে পরিশ্রমী নেতাকর্মীদের সাথে বৈঠক করে এ উদ্যোগটি পালন করি। তিনি আরও বলেন,আমি দীর্ঘ ১৮ বছর এ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি এবং বর্তমানেও সুনামের সহিত উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি বলেই প্রতিনিয়তই দলীয় নেতাকর্মীদের সকল বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে থাকি।

এমনই অবস্থায় আমি জানতে পারি যে এ উপজেলার একসময়ের আওয়ামীলীগের কর্ণধার বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ মোট ১০ জন প্রবীণ আওয়ামী নেতারা বয়সের কারণে শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়ে বাসায় রয়েছেন। এমন সংবাদটি শোনা মাত্রই তাদের বিষয়টি নিয়ে আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন-এমপির পরামর্শে বর্তমানে রাজনীতিতে সক্রিয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তাদের বাড়িতে গিয়ে সাক্ষাৎ করে তাদের সমস্যাগুলো শুনি।এবং তাদের সাথে সাক্ষাৎকালে আমাদের ব্যক্তিগত পক্ষথেকে একটি করে মিষ্টির প্যাকেট,নামাজ পড়ার জন্য জায়নামাজ,তসবি,লুঙ্গি,টুপি,গেঞ্জি ও একটি করে ছাতা উপহার হিসাবে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

পরিশেষে তিনি বলেন, আমি মনে করি বর্তমানে যারা ক্ষমতাশীল দলের মূল মূল পদে থেকেও তারা শুধু নিজেদের স্বার্থ আর চেয়ার নিতে ব্যস্ত। আমি তাদেরকেও বলতে চাই আজ আপনারা যে ক্ষমতার চেয়ারে বসে আসেন তা সুসময়ে কিন্তু ইতিহাস জানেননা একসময়ে বিএনপি জামায়াত কবলিত এ উপজেলাতে ভয়ে জয় বাংলা বলেত সাহস পায়নি কিন্তু দলের সেই দূরসময়ে যেসকল ত্যাগী নেতাকর্মীরা জেল জুলুমের ভয় উপেক্ষা করে জয় বাংলার স্লোগান দিয়ে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেছেন তারা আজ বয়সের কারণে বাড়ি থেকেই বের হতে পারে।

তাই আপনারও সেইসব প্রবীণ নেতাদের খোঁজখবর নিন,তাদের সুখে দুঃখে পাশে দাঁড়ান তবেই তো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে গড়া আওয়ামী লীগের মূল আদর্শ গড়ে উঠবে পাশাপাশি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠোর পরিশ্রমের উন্নয়নশীল ডিজিটাল বাংলাদেশের রাজনীতি আরও গতিশীল হবে। এতে আমার দীর্ঘ বিশ্বাস তৃৃৃৃনমূল পর্যায়ের রাজনীতির চিত্রই পাল্টে যাবে। এমনকি আওয়ামী লীগের রাজনীতির প্রতি সাধারন মানুষেরা আরও আস্থাশীল হবে বলে আমি মনে করি।

যেমন আমার দলীয়সহ সাধারন জনগণের ব্যাপক সমর্থক থাকাই ইচ্ছে না থাকলেও দলীয় ও জনগণের আশা পূরণে আসছে আগামী পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেলে মেয়র প্রার্থী হওয়ার জন্য ইতিমধ্যে সিদ্ধান্তও নিয়েছি বলে আব্দুল মজিদ মোল্লা জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ক্ষেতলাল পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম,বড়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফ আলী ফকির, বড়তারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, তুলসীগঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ধর্ম-বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব বজলুর রহমান,উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, ক্ষেতলাল পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খলিলুর রহমান কাজী, প্রবীণ আওয়ামী নেতা গোলাম মহিউদ্দিন,আলমপুর ইউপি আওয়ামী লীগের দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আশাবাদী ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাজিবুল ইসলাম রাজু,স্থানীয় পল্লী কবি (সাংবাদিক) মনছুর রহমান বাবু, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম রিয়াদ, ক্ষেতলাল উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুল আরশ শুভ, মতলুব হোসেন, সেকেন্দার আলী,সাব্বির হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের আরও অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.