প্রতিনিধি নয়, সেবক হিসেবে মানুষের জন্য কাজ করতে চাই – মেয়র প্রার্থী আব্দুল মজিদ মোল্লা

বর্তমান খবর,জয়পুরহাট,প্রতিনিধিঃ
“একজন প্রতিনিধি নয় সেবক হিসেবে সকল মানুষের জন্য কাজে করতে চাই” জনগণের সেবা করার প্রত্যাশা নিয়ে জয়পুরহাটের আসন্ন ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জেলার ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি, উপজেলা আওয়ামী লীগের দূরসময়ে দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে দায়িত্বে থাকা সাবেক সাধারন সম্পাদক, জয়পুরহাট জেলা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য,ক্ষেতলাল গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি, সমাজসেবক ত্যাগী পরিশ্রমী নেতা আব্দুল মজিদ মোল্লা। জনসেবার মাধ্যমেই আওয়ামী সরকারের ডিজিটাল রোল মডেল হিসেবে ক্ষেতলাল পৌরসভাকে গড়ে তুলতে চান এ আওয়ামী নেতা আব্দুল মজিদ মোল্লা।

সম্প্রতি প্রতিবেদকের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে নিজের কাঙ্ক্ষিত এ লক্ষের কথা উল্লেখ করে ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামীলীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি,আসন্ন আগামী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে আব্দুল মজিদ মোল্লা এসব জানান।

মজিদ মোল্লা প্রতিবেদক কে আরও বলেন, আমার দলীয়সহ ব্যাপক জনসমর্থন থাকা শর্তেও গত নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হওয়ার পরিকল্পনা ছিলো কিন্তু বর্তমান মেয়রকে দলীয় ভাবে সমর্থণ দিয়ে আমি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করি। এবং তাকে নির্বাচিত করলেও এ পৌরসভায় তেমন কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি পৌরসভার পক্ষথেকে কোন উন্নয়ন কাজও ঠিকমত হয়নি। তাই জনগণের ভালোবাসায় এবং দলীয় ব্যাপক সমর্থন থাকাই আগামী আসন্ন ক্ষেতলাল পৌরসভা নির্বাচনে আমি মেয়র পদে প্রার্থী হওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এবং আমি শতভাগ আশাবাদী যে দলের উর্ধতণ নির্দেশে গোয়েন্দা জরিপ চালালে সৎ গ্রহণযোগ্য দুর্নীতিমুক্ত, সচ্ছ রাজনৈতিক,সমাজ সেবক ও পরিশ্রমী ব্যক্তি হিসেবে দল আমাকেই মনোনীত করে নৌকা প্রতীক দিবেন এবং আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে এ ক্ষেতলাল পৌরসভাকে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাবাহিতায় একটি মডেল পৌরসভা গড়ে তুলবো ইনশাআল্লাহ।

পৌরসভা সমস্যা সম্পর্কে তিনি বলেন, বর্তমানে সমস্যা হলো ড্রেনেজ ব্যবস্থা নেই, জলাবদ্ধতা। কিছু রাস্তাঘাটের সংস্কার ও নির্মাণের অতি প্রয়োজন। আবর্জনা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা,পৌরসভার বাসা-বাড়ির ময়লা অপসারণের লক্ষে এখনো প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। এমনকি হাট-বাজার বা প্রতিষ্ঠানের বর্জ্য নির্দিষ্ট স্থানে রাখা হয়না,ক্ষেতলাল যে একটি পৌরসভা তা বাস্তবে দেখলে কেউ বিশ্বাসী করবে না এরচেয়ে ইউনিয়ন গুলোই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় রয়েছে।

আবর্জনা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে তিনি বলেন, পৌরসভার বাসা-বাড়ির ময়লা অপসারণের লক্ষে এখনো প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। এমনকি হাট-বাজার বা প্রতিষ্ঠানের বর্জ্য নির্দিষ্ট স্থানে রাখা হয়না,ক্ষেতলাল যে একটি পৌরসভা তা বাস্তবে দেখলে কেউ বিশ্বাসী করবে না এরচেয়ে ইউনিয়ন গুলোই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় এগিয়ে রয়েছে তাই এমন সব প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষে এবং পৌরবাসীর স্বার্থে আমি এবার মেয়র প্রার্থী হতে ইচ্ছুক।

পরিশেষে প্রতিবেদক কে আওয়ামী নেতা আশাবাদী মেয়র প্রার্থী আব্দুল মজিদ মোল্লা মেয়র নির্বাচিত হলে তাহার ইশতিহার সম্পর্কে বলেন, পৌরসভার উন্নয়ন ও ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে ক্ষেতলাল কে উন্নত আধুনিক মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে দেখাতে চাই। বর্তমান সরকার ডিজিটালাইজেশনের ক্ষেত্রে শতভাগ বাস্তবায়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিতায় ক্ষেতলাল পৌরসভার নিজস্ব অনলাইন ব্যবস্থা করবো, সেখানে থেকে জন্মসনদ, লাইসেন্সসহ বিভিন্ন কাজের ফরম পাওয়া যাবে। তথ্যসেবা কেন্দ্র খোলা হবে। সমস্ত বিলিং-ভাউচার ডিজিটাল করা হবে। পৌরসভার নিজস্ব ওয়েবসাইট খোলা হবে। আমাদের সব কাজ নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জনগণ দেখতে পারবেন।

পৌরসভার শিশুদের সুবিধার্থে খেলাধুলাসহ সব কাজে সহায়তা করা হবে। যেসব বিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হচ্ছে না সেগুলোতে সর্বরকম সহায়তা আমি মেয়র হলে তা বাস্তবায়ন করবো ইনশাআল্লাহ। বলে প্রতিবেদকের মাধ্যমে ক্ষেতলাল পৌরসভাবাসীর কাছে দোয়া ও আশির্বাদ চেয়েছেন ক্ষেতলাল উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি ও আগামী আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে আশাবাদী মেয়র পদপ্রার্থী আব্দুল মজিদ মোল্লা।

আরও পড়ুন
Loading...