পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাড়ীঘরে হামলা লুটপাট ও প্রাণনাশের হুমকিসহ আহত -২

বর্তমান খবর,সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি ঃ
জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার ৭নং সিঁদুলী ইউনিয়নের বীর লোটাবর গ্রামের মৃত উদ্দিন শেখ এর ছেলে শহীদ মিয়া, চাচাতো ভাইদের ডরে ও অত্যাচারে নিজ বাড়ীঘর ছেড়ে আজ পলায়িত বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বাপ-দাদার পৈত্রিক সম্পত্তির জের ধরে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার(১৭ নভেম্বর) বিকাল ৪ ঘটিকায় শহীদের স্ত্রী রিক্তা বেগম তাদের সীমানায় বেড়া দিতে গেলে মৃত বদি শেখ এর স্ত্রী আছমা বেওয়া অর্থাৎ বিবাদী ভোলার মা, বাঁধা দেন। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হলে, এমন সময় রইজ উদ্দিনের ছেলে শাকিব(১৪) এসে অতর্কিত হামলা করে শহীদের স্ত্রীর উপর। পরে শহীদ ঘর থেকে বাইরে এলে তাকেও মারপিট শুরু করে।

এক পর্যায়ে বদি শেখ এর ৬ ছেলে, স্ত্রী ও পোলাপানরা সহ শহীদ ও তাঁর স্ত্রীকে বেদম মারপিট করে। পরে এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেন। শহীদ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে মোটামুটি সুস্থ থাকলেও তাঁর স্ত্রী গুরুতর অসুস্থ হয়ে সরিষাবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

আহত শহীদের স্ত্রী বলেন, তাঁর অসহায় সহজ সরল স্বামীকে একা পেয়ে বদি শেখ এর ৬ ছেলেরা সব সময়ই নির্যাতন করে এবং বাড়ীর জমিটুকু বেদখলের চেষ্টা করে। আমার শশুর ও দাদা শশুর যেভাবে জমি বন্টন করে দিয়ে গেছেন। এখন তাঁরা সেটা মানেন না। তাঁরা নিজেদের সুবিধা মত বন্টন করতে চায়।

এই নিয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও চেয়ারম্যান সহ ৩ তিন দফা সালিশ করলেও এর কোন মীমাংসা হয়নি। আজ তাঁরা আমার স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা ৪/৫ টি মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। পুলিশের ভয়ে আমার স্বামী বাড়িঘরে ঠিকমত থাকতে পারেন না এবং স্ত্রী সন্তানের ভরণপোষণ দিতে পারছেন না। আমি এই অমানবিক জুলুম-নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচার চাই প্রশাসনের কাছে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুুবুর আলম মিরন বলেন, বিষয়টি সামাজিক ভাবে মীমাংসার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.