পল্লী ডাক্তারের চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু

বর্তমান খবর,ভালুকা(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি:
ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মল্লিকবাড়ী বাজারে আলতাব মেডিকেল হল নামে একটি লাইসেন্স বিহীন ঔষধের দোকানে সোমবার বিকালে শ্বাসকষ্ট নিয়ে আসা রেজিয়া খাতুন (২৫) নামে এক রোগীকে চিকিৎসা দেয়ার কিছুক্ষণ পর মারা যায় বলে অভিযোগ উঠেছে।

(৩১মে) সোমবার বিকাল ৫ টার দিকে উপজেলার পাঁচগাঁও পাানিভান্ডা গ্রামের সুমন মিয়ার স্ত্রী দুই সন্তানের জননী রেজিয়া খাতুন শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হলে তাকে মল্লিকবাড়ী বাজরের ঔষধ ব্যবসায়ী মাইনউদ্দীন মানিকের দোকানে নিয়ে আসে। পরে পল্লী চিকিৎসক মানিক দেড় ঘন্টা সময় রোগীর চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়।

বাড়ী যাওয়ার পথে ঘুনিরঘাট এলাকায় রোগীর মৃত্যু হয়। বিষয়টি জানা জানি হলে এলকায় ব্যপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। ঘটনার বিস্তারিত জানতে সোমবার রাত ৮ টার দিকে মল্লিকবাড়ী বাজারে আলতাব মেডিকেল হলে গিয়ে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান,“রেজিয়া নামের রোগীটি প্রচুর গ্যাস ও শ্বাস কষ্ট নিয়ে তার দোকানে আসলে তিনি ইসোনিক্স ৪০ ইংজেকশন পুশ করেন সাথে সালফেক্স গ্যাস ও মন্টিলেক্স টেবলেট দিয়েছেন, তার দোকানে রোগী প্রায় দেড় ঘন্টা অবস্থান করে এবং কিছুটা সুস্থ্য হলে তিনি রোগীকে বাড়ী নিয়ে যেতে বলেন। তার মতে রোগীকে সঠিক চিকিৎসা দিয়েছেন। বাড়ী যাওয়ার পথে রোগী মারা যাওয়ার বিষয়টি তিনি শুনেছেন তবে কি কারনে রোগীর মৃত্যু হয়েছে তিনি বলতে পারবেন না, তিনি জানান বড় বড় ডাক্তারের কাছেও রোগী মারা যায়।

রোগীর করোনা পজেটিভ ছিলো কিনা তিনি জানেননা। ঔষধে ঠাসা দোকানটির কোন লাইসেন্স দেখাতে পারেননি। খবর পেয়ে রাতেই ভালুকা থানা পুলিশ ওই দোকানটি পরিদর্শন করেন। জানা যায় রোগীর পরিবার নেহায়েত গরীব হওয়ায় আইনের আশ্রয়ে যেতে চাননি। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে একটি মহলের ব্যাপক তৎপরতা শুরু হয়েছে। মল্লিকবাড়ী ক্ষুদ্র বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রাকিব হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

আরও পড়ুন
Loading...