পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে সর্বস্ব লুটে নিয়ে গেল জ্বীনের বাদশা

বর্তমান খবর,ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার হিতামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। চিকিৎসার জন্য বাড়িতে ডেকে এনেছিলেন জ্বীনের বাদশা। চিকিৎসার দেওয়ার নাম করে নিম পাতার রসের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে সর্বস্ব লুটে নিয়ে গেল জ্বীনের বাদশা।

সোমবার হিতামপুর গ্রামের মৃত আহাদ আলীর ছেলে সয়ফুল ইসলাম (৭০) জানান, দীর্ঘদিন ধরে নানা রোগে ভুগছেন তিনি। চিকিৎসার জন্য গত রোববার বিকেলে সদর উপজেলার কুশাবাড়িয়া গ্রামের রবিউল ইসলাম রবি (৬০) নামের এক জ্বীনের বাদশাকে ডেকে আনেন তিনি।

সয়ফুলের ছেলে সুজন ইসলাম বলেন, সন্ধ্যায় হয়ে যাওয়ায় ওই লোক বলে এখন তো সন্ধে হয়ে গেছে। আজকে আর যেয়ে কি করব। আর এই বাড়িতে অনেক কিছু আছে। আসন দিতি হবে। তাই বলে আমাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে দোকান থেকে মোমবাতি, সিদুঁরসহ আর কি কি যেন আনে। রাতে ঘরের ভিতর আসন বসাতি বলে আর আমাদের নিমের পাতা বাটতে বলে। পরে আমাদের সবার যার যার ঘরে যাতি বলে। রাত ১০ টার দিক আমাদের ডেকে সবাইকে নিম পাতার রস খাইতে দেয়। আমরা ঘরে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। দুপুরে আমার ঘুম ভাঙলে বাড়ির সবার ডাকি।

সুজন আরও জানান, যাওয়ার সময় বাড়িতে থাকা নগদ ৬৫ হাজার টাকা, ১ জোড়া স্বর্ণের দুল, ১ টি আংটি, ১ জোড়া স্বর্ণের হাতের বালা ও পোশাক নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে শৈলকুপা থানার ওসি (তদন্ত) মহসীন হোসেন বলেন, এ ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন
Loading...