পরক্রিয়া ঠেকাতে স্ত্রীরা স্বামীদের খোঁজা করার ওষুধ খাওয়াচ্ছে !

বর্তমান খবর ডেস্ক : স্বামীরা যাতে অন্য নারীর সঙ্গে প্রতারণা করতে না পারে সেজন্য তাদের খোঁজা করে দেয়ার ওষুধ খাওয়াচ্ছে স্ত্রীরা। চীনা নারীদের এমন কাণ্ডের একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ভাইরাল হয়ে গেছে। এই ওষুধের বিক্রেতা অনলাইন শপগুলোর পর্দা ফাঁস করতে কেউ একজন এই পোস্ট করেন।

ওই ব্যক্তি পোস্টে লিখেন,অনেক স্ত্রী তাদের স্বামীদের সিনথেটিক অ্যাস্ট্রোজেন ওষুধ ডায়েথিলস্টিলবেস্ট্রল (ডিইএস) খাওয়াচ্ছে। যাতে করে তারা শারীরিকভাবে অক্ষম হয়ে পড়ে। এতে করে তাদের প্রেমিকারা তাদের ত্যাগ করবে।

জিয়াওজিয়াং মর্নিং হেরাল্ড বলছে, ওই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে যায়। পোস্টের নিচে অনেক নারীকেও কমেন্ট করতে দেখা যায়। তারা জানিয়েছে, তাদের এই কৌশল ‘বেশ কাজে’ দিয়েছে। একজন লিখেছেন, ওষুধ খাওয়ার দুই সপ্তাহ করে এটা কাজ করেছে। আমার স্বামী এখন বাসায় খুব ভদ্র।

আরেকজন লিখেছেন, আমার স্বামীকে ওষুধ খাওয়ানোর পর তার যৌন কার্যকলাপ ব্যাহত হয়। সে নিজেকে জিজ্ঞাসা করে কেন এমনটা হচ্ছে? আমাকে দোষ দিও না। পরিবারের জন্যই আমি এমনটা করেছি এবং ভবিষ্যতেও এটা আমি তাকে দিয়ে যাবো।

পরে হুনান প্রদেশের জিয়াওজিয়াং মর্নিং হেরাল্ডের একজন সাংবাদিক অনলাইন ডিইএস কেনার চেষ্টা করেন। কিছু অনলাইন শপ জানায়, তারা এগুলোর বিজ্ঞাপন করেনি। তবে কেউ চাউলে তারা গোপনে তা পৌঁছে দিতে পারবে।

একটি দোকানের সহকারী জানান, এই ওষুধের ৫০ গ্রামের দাম ৯০ ইউয়ান, ১০০ গ্রামের দাম ১৭০ ইউয়ান আর ২০০ গ্রামের দাম ৩২০ ইউয়ান। তিনি বলেন, অনেকেই এটা কিনছে। প্রতি অন্তত ১০০ জন এটা কিনছে।

ওই সহকারী আরও জানান, এই ওষুধ গন্ধহীন সাদা পাউডার হিসেবে পাওয়া যায়। এটা খুব সহজেই পানির সঙ্গে মিশে যায়। স্বামীর খাবারের সঙ্গে এক বা দুই গ্রাম ওষুধ মিশিয়ে দিলেই হয়।

এদিকে হুনান প্রদেশের সেকেন্ড পিপল’স হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট লুয়ো মো বলেছেন, এটা মূলত অ্যাস্ট্রোজেনের স্বল্পতা এবং নারীদের পিরিয়ডের নিয়মিত করতে ব্যবহার হয়। কিন্তু এখন সেটাকে কিছুটা মডিফাই করে ন্যাচারাল করার চেষ্টা করা হয়েছে, যা এখন জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

তিনি বলেন, এই ওষুধ খেলে পুরুষের সেক্সুয়াল ফাংশনে প্রভাব পড়তে পারে। আর দীর্ঘ সময় ধরে এই ওষুধ খেলে কার্ডিওভাস্কুলার সিস্টেমের ওপর প্রভাব পড়ে। এছাড়া যকৃতের মেটাবোলিজমের ওপরও এটা প্রভাব ফেলে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন
Loading...