নির্বাচনী সহিংসতা মঠবাড়িয়ায় দুই সাধারন সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ২০ থানায় মামলা, প্রার্থীসহ আটক-৩

বর্তমান খবর,পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ইউপি নির্বাচনে বেতমোর ইউনিয়নের প্রতিদ্ব›দ্বী দুই সাধারন সদস্য প্রার্থীর সমর্থদের মধ্যে শনিবার রাতে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ২০ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ইউপি সাধারন সদস্য প্রার্থী মোদাচ্ছের হোসেন, আল-আমিন মিস্ত্রী ও মিরনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, প্রচারনার শেষ দিনে শনিবার দিনগত রাত দশটার দিকে উপজেলার বেতমোর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সাধারন সদস্য প্রার্থী মোদাচ্ছের হোসেন হাওলাদার (ফুটবল) এর সমর্থকরা প্রচারনা শেষে পিরু শিকদারের (তালাচাবি) মাইক ভাংচুর করে। এ ঘটনায় দুই প্রার্থীর সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এতে পেরু শিকদারের সমর্থক কামাল হোসেন (৪৫), রুহুল আমিন (৪৭), শহিদুল ইসলাম বাবুল শিকদার (৪৫), ফারুক শিকদার (৪৫) রাজ্জাক হোসেন রাজু (২২) আহত হয়।

অপরদিকে মেম্বর প্রার্থী মোদাচ্ছের হোসেন (৬২), আমির হোসেন (৫৬), আল-আমিন (২৮), হানিফ (৪৫), মিলন (২৫), মুছা (২১), এমাদুল হক (৫০), শামসুল আরম (৬০), জহিরুল শিকদার (২৫), হারুন-অর-রশিদ (৬৫) সহ ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদের মধ্যে আমির হোসেন, হানিফ, কামাল হোসেন, ফারুক শিকদার ও রাজ্জাক হোসেন রাজুকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে স্থাননান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় পেরু শিকদার তার প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী মোদাচ্ছের হোসেনসহ ৩১ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, দুই সাধারন সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের সংর্ষের ঘটনায় এক প্রার্থীসহ তিন জনকে আটক করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
Loading...