দেশে ইসলামিক ব্যাংকিং কার্ড চালু করেছে ভিসা ভ্রমণ, কেনাকাটা ও প্রতিদিনকার জীবনে বিশেষায়িত নানা চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে

বর্তমান খবর : সম্প্রতি, ইসলামী ব্যাংকিং নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশি গ্রাহকদের সেবাদানে নতুন পোর্টফোলিও চালু করার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল পেমেন্ট প্রতিষ্ঠান ভিসা (এনওয়াইএসই: ভি)।

শরীয়াহ নীতি অনুযায়ী নতুন ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড ইসলামিক ব্যাংকিং কার্ডধারীদের জন্য ডাইনিং, ভ্রমণ ও কেনাকাটার মত বিষয়গুলোতে আকর্ষণীয় সুবিধা প্রদান করবে।
শরীয়াহ নীতি অনুযায়ী পরিচালিত ব্যাংকগুলো (সাধারণ এবং ইসলামী), যদি ইসলামী ব্যাংকিং এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কার্ড গ্রাহকদের দিতে চায়, সেক্ষেত্রে এখন তারা এটা ভিসার নানা সংস্করণের কার্ডের মাধ্যমে করতে পারবে; যেমন: ক্লাসিক, গোল্ড, প্ল্যাটিনাম ও সিগনেচার। এসবগুলো কার্ডেই রয়েছে বিস্তৃত পরিসরের নানা সুবিধা।

কার্ডগুলো হজ ও ওমরাহ, অবসর ভ্রমণ, শপিং, স্বাস্থ্যসেবা এবং খুচরা কেনাকাটার ক্ষেত্রে ইসলামী ব্যাংকিং গ্রাহকদের দুর্দান্ত সব সুবিধা প্রদান করবে। গ্রাহকরা এই অফারগুলো অনলাইনের পাশাপাশি ভিসা কার্ড গ্রহণ করে দেশের এমন যেকোনো দোকানে গিয়েও উপভোগ করতে পারবেন। জিসিসি (গালফ কো-অপারেশেন কাউন্সিল) অঞ্চলে পরিচালিত একটি সমীক্ষায় ভিসা দেখতে পেয়েছে যে, সাধারণ ও ইসলামী উভয় ধরণের কার্ড ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় ৪৬ শতাংশ গ্রাহক অন্য কার্ডের চেয়ে ইসলামী ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন এবং ১৫ শতাংশ গ্রাহক তাদের প্রচলিত ক্রেডিট কার্ডকে পছন্দ করেছেন; তারা এটিকে ‘টপ অব ওয়ালেট’ হিসেবে গড়ে তুলেছেন।

ভিসার বাংলাদেশ, নেপাল ও ভুটানের কান্ট্রি ম্যানেজার সৌম্য বসু বলেন, “বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকিংয়ের অন্যতম প্রধান একটি বাজার এবং এ পদ্ধতিতে ব্যাংকিং গ্রাহকদের বিভিন্ন উদ্ভাবনী পদ্ধতি সেবাদান করে আসছে। স্থানীয় বাজারে ধারাবাহিকভাবে প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানে ভিসা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা ইসলামী ব্যাংকিং গ্রাহকদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি কার্ডগুলোর একটি অসাধারণ পোর্টফোলিও চালু করতে পেরে আনন্দিত। আমরা অধীর আগ্রহে ব্যাংকগুলোর অংশীদার হতে এবং আমাদের ইসলামী ভিসা কার্ড আরও বেশি বাংলাদেশি গ্রাহকদের কাছে পৌছে দেয়ার প্রত্যাশা করছি।”

জীবনকে আরও সহজ করে তুলতে ইসলামী কার্ডধারীদের ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ডাইনিং, শপিং ও আরও অসংখ্য বিষয়ে জানতে ভিসা একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট চালু করেছে; এর মাধ্যমে গ্রাহকরা কার্ডের সাথে থাকা অফারগুলো সম্পর্কেও জানতে পারবে। লাইফস্টাইলের সুবিধা ছাড়াও কয়েকটি ইস্যুকারী ব্যাংকের ইসলামী কার্ডধারীদের যাকাত অনুদানের বিধানও থাকতে পারে। গ্রাহকরা আন্তর্জাতিক অফারসহ আরও বেশি সুবিধাগুলো পেতে পারেন বিশাল ভিসা অফার পোর্টালে।

বিশ্বের প্রায় ৩৫ শতাংশ ইসলামী ব্যাংকিং এর গ্রাহক বাংলাদেশে এবং বর্তমানে দেশে এ খাতে ২৫ শতাংশেরও এরও বেশি আয় করে শরীয়াহভিত্তিক ব্যাংকিং। ইসলামী ব্যাংকিং-এ ভিসা অনেকদিন ধরেই কাজ করছে; মধ্যপ্রাচ্য,ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ায়ও ভিসার এ অফারগুলো রয়েছে। এ কার্ডগুলোর জন্য ইস্যুকৃত ব্যাংক জুয়া খেলা, ডেটিং ও মদ এ রকম কিছু নির্দিষ্ট ক্যাটাগরি নিষিদ্ধ করতে পারে। জুলাইয়ের মধ্যে ইসলামী ব্যাংকিং কার্ড বাজারে আনতে ভিসা এখন একাধিক ইস্যুকারীদের সাথে কাজ করছে।

আরও পড়ুন
Loading...