Ultimate magazine theme for WordPress.

বেনাপোলে মাদক নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের…

কমলগঞ্জে স্বামীকে অচেতন করে স্ত্রীর পরকিয়ায়…

দারাজের সাথে সোয়াপের চুক্তি স্বাক্ষর

0 ৭০

বর্তমান খবর : দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ (https://www.daraz.com.bd/) সম্প্রতি দেশের প্রথম রি-কমার্স ব্র্যান্ড সোয়াপ (https://swap.com.bd/) – এর সাথে কৌশলগত অংশীদারিত্বের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এই চুক্তি স্মার্টফোনপ্রেমী এবং প্রযুক্তি অনুরাগীদের স্মার্টফোন ব্যবহারে নতুন সুযোগের সৃষ্টি করেছে।

সম্প্রতি আয়োজিত এক ভার্চুয়াল চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানদ্বয়ের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন দারাজ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক এবং সোয়াপ ও লাইভওয়্যার বিডি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী পারভেজ হোসেন।

এই চুক্তির আওতায় কোন গ্রাহক যদি তার পুরনো ইলেকট্রনিক পণ্যগুলো সোয়াপ অ্যাপ বা এর ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করেন, তবে তিনি পণ্যের দামের (বিক্রয়) সাথে ৬ হাজার টাকা পর্যন্ত ভাউচার পাবেন। পরে, গ্রাহক এই ভাউচারটি ব্যবহার করে অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ থেকে নতুন ফোন কিনতে পারবেন। গ্রাহকদের জন্য এই আকর্ষণীয় অফারটি চলবে চলতি ২৬ এপ্রিল, ২০২১ থেকে ১৩ মে, ২০২১ পর্যন্ত।

দারাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক এ ব্যাপারে বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রতিদিনই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে। আর এই ব্যবহারকারীদের জন্য কিছু করার প্রচেষ্টা থেকেই এ অংশীদারিত্ব।

এই নতুন চুক্তির ফলে পুরনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস বিক্রি এবং সোয়াপ প্রদত্ত ভাউচার ব্যবহার করে আসল দামের চেয়ে অনেক কমে দারাজ থেকে নতুন ফোন কেনার দারুণ একটি সুযোগ তৈরি হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস এ অফার স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের এ ঈদে পছন্দের স্মার্টফোন কেনার সুযোগ করে দিবে।’

সোয়াপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী পারভেজ হোসেন বলেন, ‘আশা করছি এই অংশীদারিত্ব আমাদের ও দারাজের গ্রাহকদের আরও সহজে ও সাশ্রয়ী মূল্যে আসল পণ্য পেতে সহায়তা করবে এবং একইসাথে ই-বর্জ্য এবং পরিবেশ দূষণ হ্রাস করে আরও সবুজ বাংলাদেশ গড়তে আমাদের সাহায্য করবে।’

এর ফলে, মানুষ তাদের ব্যবহৃত ইলেকট্রনিক পণ্যের বিনিময়ে শুধু একটি ন্যায্য মূল্যই পাবেন না, পাশাপাশি তারা কম মূল্যে নতুন ফোন কিনতে পারার অবিশ্বাস্য সুযোগও পাবেন।

দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ, অসংখ্য বিক্রেতাকে লক্ষাধিক ক্রেতাদের সাথে যুক্ত করেছে। একশো’রও বেশি ক্যাটাগরির প্রায় ১ কোটি ৭০ লাখের বেশি পণ্য কেনাকাটায় গ্রাহকদের তাৎক্ষনিক এবং সহজ সুবিধাদানের সাথে সাথে প্রতি মাসে ২০ লাখেরও বেশি পণ্য বিশ্বের সকল প্রান্তে পৌঁছে দিচ্ছে দারাজ। দারাজ তার গ্রাহকদের জন্য একইসাথে একটি বাজার, মার্কেটপ্লেস এবং কমিউনিটি।

দারাজ উদ্যোক্তাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো, কেননা প্রতিষ্ঠানটি প্রতিমাসে ই-কমার্স সম্পর্কে পাঁচ হাজারেরও বেশি নতুন বিক্রেতাকে সচেতন করে তোলে। দারাজ বিভিন্ন লজিস্টিক চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে উঠার লক্ষ্যে, বিশেষত তাদের ই-কমার্স অপারেশনগুলোকে মাথায় রেখে ‘দারাজ এক্সপ্রেস’ (ডেক্স নামে পরিচিত) নামক নিজেদের লজিস্টিক কোম্পানি গঠন করেছে।

দারাজ বিদ্যমান এবং নতুন লজিস্টিক সরবরাহকারীদের ডিজিটালকরণে সহায়তা করছে। ২০১৮ সালে আলীবাবা গ্রুপ দারাজকে অধিগ্রহণ করে এবং ‘ডিজিটাল অর্থনীতির যুগে যেকোন স্থানে ব্যবসা সহজীকরণ’- এই লক্ষ্যের অংশ হিসেবে দারাজ গর্বের সাথে কাজ করে চলেছে। আলীবাবার অংশ হিসেবে, দারাজ বাজারে তার প্রতিষ্ঠানগত উন্নয়নে আলীবাবার নেতৃত্ব এবং প্রযুক্তি,অনলাইন
বাণিজ্য, মোবাইল পেমেন্ট এবং লজিস্টিকের অভিজ্ঞতাকে ব্যবহার করছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.