জনদুর্ভোগ লাগবে গোলাপগঞ্জ বাজারে অর্ধকোটি টাকায় পৌর সভার ড্রেন নির্মাণের উদ্যোগ

বর্তমান খবর,গোলাপগঞ্জ(সিলেট) প্রতিনিধি :
গোলাপগঞ্জ বাজারে পৌরসভার উদ্যোগে অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে একটি ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। বহুপ্রতিক্ষিত এ ড্রেনের অভাবে এতদিন গোলাপগঞ্জ বাজারের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত ছিটাফুলবাড়ীর অধিবাসীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে ছিলেন।

জনদুর্ভোগ লাগবে পৌর মেয়র আমিনুল ইসলাম রাবেল জরুরী ভিত্তিতে ড্রেন নির্মাণের উদ্যোগ নিয়ে কাজ শুরু করায় সর্ব মহলে প্রশংসিত হয়েছেন।

এ ড্রেন নির্মাণের কাজ শেষ হলে ব্যাপক সংখ্যক লোক ও বাসা বাড়ীর অধিবাসীরা বর্ষা মৌসুমে জন দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবেন। সেই সঙ্গে জমে থাকা পানিতে আর কোন দুর্গন্ধ থাকবে না এমন প্রত্যাশা নাগরিক সমাজের। শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর পৌর মেয়র বিশিষ্ট নাগরিকদের নিয়ে ড্রেনের নির্মাণ কাজ পরিদর্শ করেন।

গোলাপগঞ্জ পৌর শহর তথা গোলাপগঞ্জ বাজার এলাকার অন্যতম সমস্যা ছিল ছিটাফুলবাড়ী এলাকার পানি সমস্যা। পানির নির্দিষ্ট পথ না থাকায় প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি জমে বাসা বাড়ি ও দোকান পাট গুলোর ব্যবসা বাণিজ্যে বড় ধরনের বিঘœতা সৃষ্টি করত। পানিতে জমে থাকা ময়লা আবর্জনা ও পলিথিনের ব্যাগ পরিবেশের জন্য মারাত্বক হুমকি হয়ে দেখা দেয়।

এ সমস্যা বাজার এলাকার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি জনপদের বাসিন্দাদের জন্য বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হয়ে দেখা দিয়েছিল। বদ্ধ পানির কারণে প্রতি বছর বর্ষার মৌসুমে ব্যাপক সংখ্যক মানুষ চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিন পাত করতে হত। বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগীরা পৌর মেয়র আমিনুল ইসলাম রাবেলের সঙ্গে আলাপ করলে তিনি দুর্ভোগ লাগবে জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

এরই আলোকে অর্ধ কোটি টাকা বরাদ্ধ করে ড্রেন নির্মাণের উদ্যোগ নেন পৌর মেয়র রাবেল। সম্প্রতি ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু হলে শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে নির্মাণ কাজ দেখতে পৌর মেয়র আমিনুল ইসলাম রাবেল,গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আব্দুল আহাদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজী ফখরুল ইসলাম, বিশিষ্ট সমাজসেবী ফয়জুল ইসলাম ফয়ছল, আব্দুস সালাম, আব্দুল আজিজ, আতিকুর রহমানসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ওই এলাকা পরিদর্শন করেন ।

এ সময় পৌর মেয়র জনতার উদ্দেশ্যে বলেন গোলাপগঞ্জ পৌর শহরের কিছু অংশের দীর্ঘ দিনের পানি সমস্যা খুব শিঘ্রই নিরসন হবে। কাজ শুরু হয়েছে, অবশিষ্ট কাজ আগামীতে শেষ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ সময় পানি সমস্যা নিরসনসহ সকল উন্নয়ন মূলক কাজে পৌর পরিষদকে সহযোগীতা করার জন্য তিনি সবার প্রতি আহবান জানালেন।

আরও পড়ুন
Loading...