কালীগঞ্জে বেদে পল্লীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তঃসত্ত্বা রেশমীর স্বপ্ন গেল মরে

বর্তমান খবর,কালীগঞ্জ(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধিঃ
জমিতে বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে কালীগঞ্জের বেদে পল্লীতে দুটি গ্রুপের সংঘর্ষে রেশমী নামের এক অন্তঃসত্ত্বা নারীর ছেলে সন্তানের স্বপ্ন হল নষ্ট। কাশীপুর বেদে পল্লীতে গত ১৪ এপ্রিল পথের জমি ঘেরা কেন্দ্র নিয়ে বেদে পল্লীর ২ পক্ষের সংঘর্ষে হয়। এ ঘটনায় রাসেল স্ত্রী ৪ মাসের গর্ভবতী নারী রেশমী খাতুন সংঘর্ষে মারাত্নক আহত হয়।

আহত রেশমী খাতুন ২টি কন্যা সন্তান আছে। এ ব্যাপারে রেশমী খাতুনের বড় বোন আফেলা বেগম জানান,তাদের কাশীপুর বেদে পল্লীতে ১৪ এপ্রিল পথ ঘেরা কে কেন্দ্র দুই গ্রুপে সংঘাতে লিপ্ত হয়,এ সময় আমার ছোট বোন রেশমী এগিয়ে গেলে বেদে পাড়ার খলীলুর রহমানের ছেলে রাসেল ও আলম নামের দুই যুবক তার গর্ভবতি বোন রেশমী খাতুনের পেটে লাথি মারে,এরপর রেশমী খাতুনের খুব রক্তপাত হওয়ার কারণে স্থানীয় কালীগঞ্জ উপজেলার একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

ক্লিনিকের ডাক্তারের পরামর্শে আল্ট্রাসনো পরিক্ষা করলে রির্পোট দেখে ডাক্তার জানান পেটে গুরুতর আঘাতের কারণে রক্তক্ষরণে বাচ্টা মারা গেছে। এরপর তাদের পরামর্শে গর্ভপাত করানো হয়।

বর্তমানে বেদে পল্লীতে এ নিয়ে চরম উত্তেজনা চলছে। আফেলা বেগম কান্নাস্বরে জানান আমার বোন রেশমীর ২টি শিশু কন্যা সন্তান আছে,একটি ছেলে সন্তানেরা আশা নিয়ে জীবন চলছিল গরিবানা হালে,ওরা আমার বোনের স্বপ্ন পূর্ন হতে দিল না,আমরা এদের বিচার চাই।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচাজ মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান,এ ব্যপারে এখনো কোন অভিযোগ পায় নাই,পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন
Loading...