করোনা সঙ্কটে আবারো অসহায় মানুষের পাশে সাংসদ কন্যা ডরিন

বর্তমান খবর,কালীগঞ্জ(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি:
গোটা বিশ্ব যখন করোনা ভাইরাসে বিধ্বস্থ,বাংলাদেশও রেহাই পায়নি এই প্রকোপ থেকে। বিশ্বের পাশাপাশি লড়ছে সমগ্র বাংলাদেশ। এই অবস্থায় এলাকার অসহায় ও নিম্ন আয়ের মানুষের কথা চিন্তা করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মিদের সাথে নিয়ে করোনা মোকাবেলায় ঝাঁপিয়ে পড়েন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার এমপির কনিষ্ঠ কন্যা
মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন।

ডরিন সততা ও নিষ্ঠার সাথে দীর্ঘদিন কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। করোনায় ঘরে থাকা মানুষের খাদ্য বিতরনের পাশাপাশি জনসচেতনায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন এই সাংসদ কন্যা। কঠিন এই সঙ্কটে একতার লড়াইয়ে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে থাকছে অসহায় ও দলীত মানুষের পাশে।

শুধু এবারই নয়, প্রতিবারই করোনা মোকাবিলায় দুঃস্থ মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন ডরিন। এর আগেও তার পিতার নির্বাচনী এলাকা ঝিনাইদহ-৪ এর প্রতিটি এলাকার সহায় সম্বলহীন মানুষের হাতে চাল, ডাল, আলুসহ সিনেটাইজার ও মাস্ক তুলে দিয়েছেন এবং রান্না করা খাবার পথশিশু ও নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে বিতরন করেছেন একাধিকবার। একই সঙ্গে তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যতদিন করোনার এই ভয়াবহতা থাকবে ততদিন মানুষকে এভাবে সাহায্যের মাধ্যমে পাশে থাকবেন।

সাংসদ কন্যা ডরিন বলেন, করোনার ২য় ঢেউ শুরু হলে আমি ঢাকা থেকে কালীগঞ্জ এসে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মিদের সাথে নিয়ে ঝিনাইদহ-৪ নির্বাচনী এলাকায় গতবারের ন্যায় এবার শুরু করেছি খাদ্য সামগ্রী বিতরন। ২য় রোজায় মালিয়াট ইউনিয়নের দামোদরপুর ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের মাঝে জনসচেতনার পাশাপাশি মাস্ক বিতরন করেছি।

৮ম রোজায় মালিয়াট ইউনিয়নের মাদরাসায় ইফতার বিতরণ করা হয়। ১০ম রোজা থেকে গরীব অসহায় পরিবারের মাঝে পর পর ৫দিন বিনামূল্যে সবজির ব্যাগ বিতরণ করা করা হয়েছে। যে ব্যাগে থাকছে আলু, ডাঁটাশাক, পুঁইশাক, ঢেঁড়স, মিষ্টিকুমড়া, পটল ও পেঁপে।

কালীগঞ্জ উপজেলাবাসীর জন্য এ সেবা রমজান মাসের দিন গুলোতে অব্যাহত রাখা হবে। কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক মুমতারিন ফেরদৌস ডরিনের নিজ অর্থায়নে এ কার্যক্রম পরিচালনা করেন ছাত্রলীগের এ নেত্রীর এসব জনকল্যানকর কাজের উদ্যোগকে রীতিমত সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

তারা বলেন আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি ডরিন এবং ডরিনের পরিবার ভালো থাকুক, সুস্থ থাকুক, মানুষের কল্যানে সারা জীবন এভাবে কাজ করুক।

আরও পড়ুন
Loading...