কমলগঞ্জে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে চা এক শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৪

বর্তমান খবর,কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি:
কমলগঞ্জের চাম্পারায় চা বাগানে গাছের আম পাড়াকে কেন্দ্র করে সুমন গোয়ালকে (৩২) নামের এক চা শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

আপন চাচা ও চাচাতো ভাইয়েরা মিলে চা শ্রমিক সুমনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার সীমান্তবর্তী চাম্পারায় চা বাগানের ২৫ নম্বর সেকশনে এ ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, চাম্পারায় চা বাগানের বড় লাইন এলাকার বিমল গোয়ালার ছেলে সুমন গোয়ালার সাথে তার চাচা মনোহর গোয়ালার দীর্ঘ দিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে মামলা মকদ্দমাও চলছে। মঙ্গলবার সকালে বাড়ির গাছের আম পাড়া নিয়ে সুমন গোয়ালার সাথে তার চাচা মনোহর গোয়ালা ও চাচাতো দুই ভাইয়ের কথা কাটাকাটি হয়। এ বিষয়টি নিয়ে চা বাগান ব্যবস্থাপকের কাছে বিচারপ্রার্থী হয় সুমন। এতে সুমনের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন চাচা মনোহর গোয়ালা ও তার চাচাতো দুই ভাই বিশ্বজিত গোয়ালা ও সঞ্জিত গোয়ালা।

মঙ্গলবার বিকালে সুমন গোয়ালা পাহাড়ি এলাকা থেকে বাঁশ সংগ্রহ করে ২৫ নম্বর সেকশন দিয়ে ফিরছিল। এ সময় সেখানে পূর্ব থেকে উৎ পেতে থাকা মনোহর গোয়ালা ও তার দুই ছেলেসহ অপর সহযোগীরা সুমনের উপর হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা দা ও কুড়াল দিয়ে সুমনকে উপর্যুপরি কোপালে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

সন্ধ্যায় স্থানীয়রা চা বাগানের সেকশনে সুমনের রক্তাত্ব মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে বাগান ব্যবস্থাপককে জানান। পরে বাগান ব্যবস্থাপক পুলিশকে খবর দিলে কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সোহেল রানার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল তৈরি করে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে নিহতের ভাই সঞ্জু গোয়ালা বাদী হয়ে চাচা মনোহর গোয়ালাকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের ৫ ঘন্টার মাথায় বুধবার ভোর ৫টায় হবিগঞ্জের নোয়াপাড়া চা বাগান থেকে চাচাতো দুই ভাই বিশ্বজিত গোয়ালা ও সঞ্জিত গোয়ালাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে খুনের ঘটনার সাথে জড়িত অপর দুই সহযোগী বিশাল গোয়ালা ও সুজন অলমিককে বুধবার বিকাল ৩টার সময় উপজেলার কুরমা চা বাগান থেকে গ্রেপ্তার করা হলেও মামলার প্রধান আসামি মনোহর গোয়ালা পলাতক রয়েছেন।

কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলার প্রধান আসামী মনোহরকে গ্রেপ্তারে পুলিশী অভিযান চলছে।

আরও পড়ুন
Loading...