কক্সবাজারের দরিয়া নগরে ইয়াবা কারবারীদের হামলায় একই পরিবারের ৩ জন আহত

বর্তমান খবর,কক্সবাজার নিজস্ব প্রতিনিধি:
কক্সবাজার শহরের কলাতলীর দরিয়ানগরের বড়ছড়া এলাকায় চিহ্নিত ইয়াবা কারবারীদের হামলায় গুরতর আহত হয়ে হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন একই পরিবারের পিতা, পুত্র ও কন্যা।

আহতরা হলেন একই এলাকার পার্শবর্তী শুকনাছড়ির মৃত আবদুল হকের পুত্র আবদুর রহিম সোনামিয়া (৫০), তার শিশু পুত্র এনামুল হক (১০) ও কন্যা আনোয়ার হোসেেনের স্ত্রী শাহিনা বেগম (২০)।

এলাকায় প্রকাশ্যে ইয়াবা কারবারের প্রতিবাদ করায় পরিকল্পিতভাবে সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে চিহ্নিত ইয়াবা কারবারী আবদুর রহিম (৪৩), তার পুত্র সিরাজুল হক (২১), স্ত্রী আনোয়ারা বেগম আনুবী (৪০) ও কন্যা জেসমিন আক্তার (১৮) পূর্বপরিকল্পিত ভাবে আহত আবদুর রহিম সোনার মিয়া ও তার পুত্র-কন্যার উপর গত ২৭ জুন বিকাল ৪ টা বাজে ধারালো দা, লোহার রড়, ছুরি ও লাঠিসোটা নিয়ে এই নির্মম হামলা চালায়।

আহতরা বর্তমানে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে সার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন আছে। আহতদের মধ্যে গুরুত্ব আহত আবদুর রহিম সোনা মিয়ার অবস্থা আশংকা জনক। তার ডান হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে গেছে, হাতের কবজিতে গুরতর কাটা জখম এবং বাম পাশের কাঁধে আঘাতে মারাত্মক ভাঙ্গা জখম হয়েছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উভয় পক্ষের আদী বাড়ী টেকনাফে হলেও তারা দীর্ঘ দিন ধরে কক্সবাজার শহরের দরিয়ানগরের বড়ছড়া এলাকায় বসবাস করে আসছে। আহতদের একটি ফিশিং বোট আছে, যা দিয়ে তারা জীবিকা নির্বাহ করে, অন্য দিকে ইয়াবা কারবারী আবদুর রহিম ও তার ছেলে সিরাজুল হকের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন ধরে ইয়াবা কারবারের অভিযোগ আছে। বর্তমানেও আহত আবদুর রহিম ও তার পরিবার ইয়াবা কারবারীদের হুমকিতে জানমালের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

ঘটনার বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মনিরুল গিয়াস জানান, এ ধরনের কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আহতের পরিবার মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন
Loading...