অবশেষে মৌসুমী ডিপজলের সৌভাগ্য

বর্তমান খবর : প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী আর ডিপজলকে জুটি করে ২০১১ সালে এফ আই মানিক শুটিং শুরু করেছিলেন ‘সৌভাগ্য’ ছবির। ওই বছরই করেছিলেন বেশির ভাগ অংশের শুটিং। বাকি ছিল মাত্র একটি গান। সেই একটি গানের শুটিং আর সম্পাদনার কাজ করতেই লেগে গেছে প্রায় দশ বছর। অবশেষে এক দশক পর এই ছবিটি আলোর মুখ দেখছে বলে শোনা যাচ্ছে। জানা গেছে, আসন্ন ঈদে সিনেমা হল খোলা হলে ছবিটি মুক্তি দেওয়া হবে।

ইতিপূর্বে অনেকবারই মৌসুমী বলেছেন, ছবিটির মুক্তির জন্য অপেক্ষায় আছেন তিনি। গেলো বছর ছবিটি সেন্সর বোর্ডে জমা দেন পরিচালক মানিক। ছাড়পত্রও পায় বিনা কর্তনে। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান অমি বনি কথাচিত্র ও নির্মাতা এফ আই মানিক নিশ্চিত করেছেন,রোজার ঈদে ছবিটি মুক্তির জন্য প্রযোজক সমিতিতে আবেদন করেছেন তারা।

এফ আই মানিক বলেন, ডিপজলের সঙ্গে মৌসুমীর রসায়নটা জমবে ভেবেই তাদের জুটি করেছিলাম। ছবিটি ওই সময় মুক্তি পেলে সুপারহিট হতো। ৩৫ মিলিমিটারে ছবিটি নির্মাণ করেছিলাম। এখন ডিজিটালের যুগ,তাই ডিজিটালে রূপান্তরিত করতে হয়েছে।

ডিপজল বলেন, ঈদে একটি হল খোলা থাকলেও ছবিটি মুক্তি দেবো। শুধু আমার জন্য নয়, এটা মৌসুমীর জন্যও সুখবর।
এই করোনা পরিস্থিতিতে কি সিনেমা হল খুলছে ? এর উত্তরে সিনেমা হল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জল বলেন,সরকার কিন্তু হল বন্ধ এমন কোনো ঘোষণা দেয়নি। সুতরাং সরকারের ঘোষণা না আসা পর্যন্ত বলতে পারি হল খোলা আছে এবং কোনো ছবি যদি ঈদে মুক্তি দিতে চায়,তবে আমরা সেই মোতাবেক প্রস্তুতিও নেবো। আমরা চাই নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশে দর্শক সিনেমা উপভোগ করুন। প্রযোজকরা প্রস্তুত হলে আমরাও সিনেমা হলগুলোকে সেই প্রস্তুতির নির্দেশ দেবো।

সবশেষ খবরে জানা গেছে, সিনেমা হল যদি খোলা হয়,তবে ডিপজল ছবিটি মুক্তি দিতে চান। আর যদি করোনা মহামারীর কারণে সিনেমা হল না খোলা হয়,সেক্ষেত্রে ছবিটির মুক্তির সময় আবারও এক ধাপ পিছিয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে সৌভাগ্য ছবিটি আপাতত ডিপজলের জন্যে দুর্ভাগ্যই হয়ে থাকবে।

আরও পড়ুন
Loading...